আনুহলা গ্রাম হুগড়া ইউনিয়ন

আনুহলা গ্রাম হুগড়া ইউনিয়ন

টাঙ্গাইল জেলার পশ্চিম অংশে হুগড়া ইউনিয়নের ১০ ওয়ার্ডে আমার প্রিয় গ্রাম আনুহলা।আমার গ্রামটির পূর্বদিকে খড়স্রোতা ধলেশ্বরী ও পশ্চিমদিকে প্রমত্তা যমুনা নদী দ্বারা বেষ্টিত। অপূর্ব প্রাকৃতিক সৌন্দর্যশোভিত আমার গ্রাম আনুহলা টাঙ্গাইল জেলার সবচেয়ে উন্নত কয়েকটি গ্রামের মধ্যে অন্যতম।এছাড়া, আনুহলা গ্রামটি পুরো জেলার মধ্যে শিক্ষা-দীক্ষায় সবচেয়ে সুনামের অধিকারীও বটে।

আনুহলায় রয়েছে একটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, উচ্চ বিদ্যালয়, একটি ডিগ্রী কলেজ, একটি ২৫ শয্যার ইউনিয়ন দাতব্য সরকারী হাসপাতাল,  নিজস্ব ভবনসহ একটি পোস্ট অফিস, একটি স্বনামধন্য ক্লাব (ক্লাবের অধিকাংশ সদস্যই ন্যুনতম গ্রাজুয়েট), দুটো সুরম্য অট্টালিকা সম্মৃদ্ধ জামে মসজিদ, একটি সিএনজি অটোরিক্সা স্ট্যান্ডসহ একাধিক মারে্কটও। 

আনুহলা গ্রামটিতে বেশ কয়েকটি উপাধীধারী বংশের মানুষের বসবাস। এরমধ্যে সিদ্দিকী বংশ, মির্জা বংশ, সরকার বংশ, প্রামানিক বংশ, বেপারী বংশ ও মোল্লা বংশ উল্লেখযোগ্য। 

সিদ্দিকী বংশের ডা. ওসমান গণি সিদ্দিকী শুধু নিজ এলাকায় নন তিনি পুরো টাঙ্গাইল জেলায়ই খুব সন্মানিত মানুষ ছিলেন। চিকিৎসক হিসেবে তিনি সারাজীবন গণমানুষের সেবা করে গেছেন। তার কয়েকজন পুত্রের মধ্যে ডা. মনিরুজ্জামান সিদ্দিকী, ডা. আবু বকর সিদ্দিক, ড. তোফসির উদ্দিন সিদ্দিকী (বাংলাদেশ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক) সমাজে বেশ পরিচিতি ও সন্মান পেয়েছেন। 

ডা. মনিরুজ্জামান সিদ্দিকীর তিন ছেলের মধ্যে বড় ছেলে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী, মেঝ ছেলে টাঙ্গাইলের ধরেরবাড়ি মুসলিম মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ও ছোট ছেলে ঢাকায় সাংবাদিকতা করছেন। তার নাতিদের মধ্যে দুজন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কমিশনড অফিসার, দুই নাতিন ঢাকা মেডিক্যাল থেকে পাশ করা চিকিৎসক।

মির্জা বংশের মধ্যে একজন আশরাফ মির্জা ছিলেন স্বাধীনতা উত্তর টাঙ্গাইল পৌরসভার প্রথম চেয়ারম্যান। আরেকজন হাফিজ মির্জা ছিলেন পাকিস্তান আমলে প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য। এছাড়াও, ওই বংশের আরও কয়েকজন প্রবীণ বাংলাদেশ রেলওয়ে, বাংলাদেশ পুলিশবিভাগসহ বেশ কয়েক ক্ষেত্রে সুনামের সঙ্গে কর্মজীবন সম্পন্ন করেছেন।

যাই হোক, খাল, পাকা সেতু, পাঁকা রাস্তা, বিদ্যুৎ সুবিধাসহ আনুহলা গ্রামটি কৃষিতেও সম্মৃদ্ধ। প্রকৃত পক্ষে আনুহলা গ্রামটিকে দেখলে আপনি একটি মাত্র বাক্যই প্রকাশ করবেন তা হল-‘ওয়াও, এ যেন সবুজে ঘেরা প্রকৃতির সৌন্দর্যভরা একটি আদর্শ গ্রাম।’ আমি/আমরা এ গ্রামকে প্রাণের চেয়েও বেশি ভালবাসি,,,

তারেক সালমান, সিনিয়র সাংবাদিক

Share
Published by
তারেক সালমান, সিনিয়র সাংবাদিক

Recent Posts

  • বাংলাদেশ

আড়ফাঙ্গাশিয়া গ্রাম বারাসাত ইউনিয়ন

আড়ফাঙ্গাশিয়া গ্রাম বারাসাত ইউনিয়ন আড়ফাঙ্গাশিয়া গ্রাম খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলার উত্তর দিকের শেষ সীমানা সংলগ্ন…

2 months ago
  • বাংলাদেশ

উত্তর বাগবের গ্রাম পাঁচথুবি ইউনিয়ন

উত্তর বাগবের গ্রাম পাঁচথুবি ইউনিয়ন বাংলার সবুজ শ্যামল গ্রাম বলতে যা বুঝায়, তারই প্রকৃত নিদর্শন…

2 months ago
  • বাংলাদেশ

বানিপাকুরিয়া গ্রাম নয়ানগর ইউনিয়ন

বানিপাকুরিয়া গ্রাম নয়ানগর ইউনিয়নগ্রামের অবস্থানঃ আমাদের এই গ্রামটি ময়মনসিংহ বিভাগের জামালপু জেলার মেলান্দহ উপজেলার ৫…

3 months ago
  • হবিগঞ্জ সদর

পাঠলী গ্রাম রাজিউড়া ইউনিয়ন

পাঠলী গ্রাম রাজিউড়া ইউনিয়ন তেলিখালের উত্তরে পাঠলী গ্রাম টি অবস্থিত। এই গ্রামের আদিকাল তেকেই মানুষ…

7 months ago
  • খাগড়াছড়ি

ডিপি পাড়া গ্রাম লক্ষীছড়ি ইউনিয়ন

ডিপি পাড়া গ্রাম লক্ষীছড়ি ইউনিয়ন পরিচিতিঃ ঐতিহ্যবাহী "ডিপি পাড়া" গ্রামখানি খাগড়াছড়ি জেলার অধীনস্হ লক্ষীছড়ি উপজেলার…

7 months ago
  • বাংলাদেশ

বাহের চন্দ্রপুর গ্রাম চন্দ্রপুর ইউনিয়ন

বাহের চন্দ্রপুর গ্রাম চন্দ্রপুর ইউনিয়ন ২ নং ওয়ার্ড, পোস্ট কোডঃ৮০০২, পশ্চিমেঃমাহমুদপুর, পূর্বেঃবিনোদপুর, দক্ষিনেঃহবিপুর, উত্তরেঃচন্দ্রপুর। উল্লেখ…

7 months ago