সাতবসু গ্রাম ভাড়াশিমলা ইউনিয়ন

সাতবসু গ্রাম ভাড়াশিমলা ইউনিয়ন

আমাদের গ্রামের নাম সাতবসু। সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার ভাড়াশিমলা ইউনিয়নে অবস্থিত গ্রামটি। এই গ্রামটিতে প্রায় ৩০০০ লোক বসবাস করে। এই গ্রামের সবুজ নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক দৃশ্য যে কার ও মন জুড়িয়ে যাবে। ছায়ায় ঘেরা মায়ায় ঘেরা আমাদের এই ছোট্ট গ্রামটি। এই গ্রামটি সবুজ শ্যামল, শান্ত, মনোরম এক জনপদ। দিগন্ত জোড়া ফসলের মাঠ, টুইটুম্বর খাল বিলে ভরা পদ্ম।

এই গ্রামের মধ্যে দিয়ে একটি আকা-বাকা পাকা সড়ক চলে গেছে যার দুই পাশে সবুজ গাছ-পালা দিয়ে পরিবেষ্টিত।  এছাড়া অনেক কাচা,  আধাপাকা রাস্থা রয়েছে, যাতে সারাদিন গ্রামের মানুষ চলাচল করে। এই গ্রামের পশ্চিম পাশ দিয়ে ইছামতী নদী বয়ে গেছে, যেটির অপর প্রান্তে ভারত অবস্থিত। ইছামতী নদীতে মাছ আরোহন করে গ্রামের অনেক মানুষ জীবিকা নির্বাহ করেন। 

এই গ্রামে অনেক মাছের ঘের অবস্থিত। মাছ চাষ ছাড়াও এই গ্রামের মানুষ পান চাষ করে থাকেন। অধিকাংশ মানুষ অবশ্য কৃষি কাজ করেন। এছাড়া গ্রামে অনেক চাকুরী জীবী বসবাস করেন, তাদের মধ্য বেশিরভাগ শিক্ষক। এই গ্রামে সাধারণত ধান, পাট, সরিষা, গম, আলু, পেয়াজ, সহ অন্যান্য সবজি চাষ করা হয়। এছাড়া গ্রামের প্রায় প্রতিটি বাড়িতে হাস, মুরগী,  কবুতর, গরু ও ছাগল পালন করা হয়। তাছাড়া অনেকে আলাদা ভাবে মুরগির খামার এ করে থাকে।

এই গ্রামে নানা প্রজাতির পাক পাখালি দেখা যায়। সকাল হতে না হতেই তাদের কিচিরমিচির আওয়াজে সকলের ঘুম ভাঙ্গে। এই গ্রামে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুইটা মসজিদ অবস্থিত। গ্রামের খুব কাছেই একটা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও অবস্থিত।  এই গ্রামে ধনী গরিব সব ধরনের মানুষ কাধে কাধ মিলিয়ে বসবাস করে।

এই গ্রামে ছোট বড় অনেক দোকান অবস্থিত, অনেকে তাঁত শিপ্লের সাথে ও জড়িত এই গ্রামের মানুষের চলাচলের প্রধান মাধ্যম ভ্যান, ইজিবাইক ইত্যাদি। এক কথায় বলা যায়, সারি সারি গাছ পালা, আঁকা-বাঁকা মেঠোপথ,  ফসলের ক্ষেত,  বসতবাড়ি, শান বাধানো পুকুর সব মিলিয়ে চিরচেনা প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সত্যিই মনোমুগ্ধকর । 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here