Connect With Alam Kibria Pasha
Alam Kibria Pasha

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট: বাংলাদেশে শিক্ষার্থীদের জন্য প্রয়োজনীয় সহায়তা

Alam Kibria Pasha
Alam Kibria Pasha

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট বাংলাদেশের একটি উল্লেখযোগ্য উদ্যোগ, যা দারিদ্র্য ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাগত সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে গঠিত। এই ট্রাস্টের মূল উদ্দেশ্য হল শিক্ষার সুযোগ সম্প্রসারণ এবং শিক্ষার মান উন্নতি সাধন করা।

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কি

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট বাংলাদেশের শিক্ষা খাতে একটি অভিনব ও মহৎ উদ্যোগ। এই ট্রাস্টের প্রতিষ্ঠা লক্ষ্য হল দেশের দারিদ্র্য ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাগত সহায়তা প্রদান করা। এটি শিক্ষার মাধ্যমে সমাজের সমস্ত স্তরের মানুষের জীবনমান উন্নতি সাধনের একটি প্রচেষ্টা।

উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের মূল উদ্দেশ্য হল শিক্ষার সুযোগ সম্প্রসারণ এবং শিক্ষার মান উন্নতি সাধন করা। এর মাধ্যমে দেশের দারিদ্র্য ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাগত সহায়তা প্রদান করা হয়। এই ট্রাস্টের লক্ষ্য হল:

  • দারিদ্র্য ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাগত সহায়তা প্রদান।
  • শিক্ষার মাধ্যমে সমাজের সমস্ত স্তরের মানুষের জীবনমান উন্নতি সাধন।
  • শিক্ষার সুযোগ সম্প্রসারণ এবং শিক্ষার মান উন্নতি সাধন।

এই ট্রাস্ট বিভিন্ন প্রকারের শিক্ষাগত সহায়তা প্রদান করে, যেমন ভর্তি সহায়তা, ই-স্টাইপেন্ড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, ই-ভর্তি সহায়তা ব্যবহার নির্দেশিকা, এবং ই-চিকিৎসা অনুদান ব্যবহার নির্দেশিকা।

এই সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে ট্রাস্ট দেশের শিক্ষাখাতে একটি সুষম ও জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গঠনে অবদান রাখছে।

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের কার্যক্রম

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান, যা বাংলাদেশের শিক্ষা খাতে কাজ করে। এই ট্রাস্টের কার্যক্রমে মূলত শিক্ষা সহায়তা প্রদান ও শিক্ষার্থীদের উন্নত বিদ্যালয় সুযোগ উন্নত করা হয়।

শিক্ষা সহায়তা প্রদানের উপায়:

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন উপায়ে সহায়তা প্রদান করে। এটি শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয় শুরুর জন্য প্রয়োজনীয় অনুদান প্রদান করতে পারে, তাদের শিক্ষা যাত্রায় বিভিন্ন ভাবে সাহায্য করতে পারে, বা উন্নত পড়াশুনা করতে সাহায্য করতে পারে। এছাড়াও, ট্রাস্ট ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বৃত্তি প্রদানের মাধ্যমে তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়ন করতে সাহায্য করে।

শিক্ষার্থীদের উন্নত বিদ্যালয় সুযোগ:

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের জন্য বিদ্যালয় উন্নতির সুযোগ উন্নত করে। এটি বিভিন্ন প্রকল্প চালিয়ে যায় যাতে শিক্ষার্থীরা শিক্ষিত এবং প্রতিষ্ঠিত হতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, ট্রাস্ট নির্দিষ্ট অঞ্চলে বিদ্যালয় পরিচালনা করতে সাহায্য করে যাতে শিক্ষার্থীদের বৃদ্ধির সুযোগ বাড়ায়। এছাড়াও, প্রযুক্তিগত উপকরণ ও শিক্ষক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের উন্নত শিক্ষা প্রদান করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের এই কার্যক্রম বাংলাদেশের শিক্ষা খাতে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং শিক্ষার্থীদের উন্নতির পথে প্রশাসনিক ও প্রযুক্তিগত সাহায্য প্রদান করে।

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের অবদান

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট বাংলাদেশের শিক্ষা সেক্টরের উন্নতি এবং উন্নত স্বকর্মশীলতায় গুরুত্বপূর্ণ একটি ভূমিকা পালন করে আসছে। এই ট্রাস্ট প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে শিক্ষার্থীদের শিক্ষামূলক সুযোগ উন্নত করার লক্ষ্যে সুপারিশযোগ্য কাজ করে।

ট্রাস্ট বাংলাদেশের শিক্ষা সেক্টরের উন্নতির জন্য বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে অনুদান প্রদান করে, যেখানে অন্তর্ভুক্ত অনুষ্ঠানগুলি শিক্ষার্থীদের অধ্যয়ন এবং তাদের ক্ষমতা উন্নত করার লক্ষ্যে কাজ করে। এটি একটি প্রাথমিক ধাপ হিসেবে শিক্ষার্থীদের সঠিক প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে তাদের অধ্যায়নের অনুভূতি বাড়াতে সাহায্য করে।

দ্বিতীয়তঃ, প্রধানমন্ত্রীর মূল্যায়ন এবং সাহায্যের মাধ্যমে সক্ষম শিক্ষার্থীদের প্রতিষ্ঠানিক শিক্ষা অনুভব উন্নত করা হয়। এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ উপায় যার মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতিষ্ঠানিক শিক্ষা সুযোগ প্রদান করে, যাতে তারা তাদের ক্ষমতা উন্নত করে এবং তাদের উদ্ভাবন সামগ্রিক উন্নতির মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা অন্যদের সাথে তুলনামূলক সুযোগ পায়।

ভবিষ্যতে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের ভবিষ্যতের উন্নতির জন্য একটি ব্যাপক পরিকল্পনা ও উন্নতির মাধ্যমে বিদ্যার্থীদের উন্নত শিক্ষার প্রতি আগ্রহ তৈরি করা হচ্ছে।

প্রথমত, ট্রাস্ট প্রযুক্তিগত পথে এগিয়ে যাচ্ছে, যাতে শিক্ষার্থীরা এই শিক্ষার মাধ্যমে উচ্চশিক্ষার প্রতি আগ্রহ বাড়াতে পারে। এর মাধ্যমে অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের প্রোগ্রাম, কোর্স এবং অনুষ্ঠান সরবরাহ করে যা বিদ্যার্থীদের সঠিক ও আগ্রহ তৈরি করতে সাহায্য করে।

দ্বিতীয়তঃ, প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট নিয়ে বিদ্যার্থীদের উন্নত শিক্ষার প্রতি আগ্রহ বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন অনুষ্ঠান ও প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই অনুষ্ঠান ও প্রোগ্রামের মাধ্যমে বিদ্যার্থীদের উন্নত শিক্ষার সম্মতি এবং সঠিক পদ্ধতিতে অধ্যয়নের আগ্রহ বাড়ানো হচ্ছে।

সমস্ত এই পদক্ষেপগুলির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট ভবিষ্যতে বিদ্যার্থীদের শিক্ষার প্রতি আগ্রহ ও প্রতিষ্ঠানিক শিক্ষার অনুভবে প্রতিষ্ঠানিকতা বাড়ানোর লক্ষ্যে কাজ করবে।

. আর্থিক অনুদানের সুযোগ:

অনুদানের প্রকার এবং তার আবেদন পদ্ধতি।

ট্রাস্ট বিভিন্ন প্রকারের অনুদান প্রদান করে যেখানে প্রতিটি অনুদানের জন্য আলাদা পদ্ধতি ও শর্তাবলী থাকতে পারে। প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের অন্তর্ভুক্ত অনুদানের মধ্যে সাধারণত নিম্নলিখিত প্রকারের অনুদান রয়েছে:

বৃত্তি: এই প্রকারের অনুদানের জন্য ট্রাস্ট বিভিন্ন যোগ্যতা অনুসারে সিলেক্ট করে শিক্ষার্থীদেরকে অনুদান প্রদান করে। এই বৃত্তিতে আবেদনকারীদের যোগ্যতা ও প্রতিষ্ঠানের মন্ত্রণালয়ের নির্দেশিকার মধ্যে নেওয়া হয়।

প্রকল্প অনুদান: ট্রাস্ট বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে অনুদান প্রদান করে, যেমন পাঠ্যবই বিতরণ প্রকল্প, টিউশন ফি সাপোর্ট প্রকল্প, পোষ্যকারী খাবার প্রদান প্রকল্প ইত্যাদি।

অনুদানের আবেদন পদ্ধতি সাধারণত অনলাইনে উল্লেখিত নির্দেশিকা অনুসারে করতে হয় এবং আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত তথ্য এবং দলিল সঠিকভাবে সংগ্রহ করতে হয়। অনুষ্ঠানের জন্য যোগ্যতা এবং অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের শর্তাবলী প্রকাশিত নোটিশ বোর্ডে প্রকাশিত হয়।

প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট অন্তর্ভুক্ত অনুষ্ঠান এবং উপবৃত্তির পদ্ধতি

প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট অন্তর্ভুক্ত অনুষ্ঠান এবং উপবৃত্তি প্রদানের পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

ট্রাস্ট বিভিন্ন প্রকারের অনুষ্ঠান ও উপবৃত্তি প্রদান করে, যেমন শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তি, পুরস্কার, ও ভার্সিটি এডমিশনের জন্য সাপোর্ট এবং সুবিধা প্রদান ইত্যাদি।

অনুষ্ঠানের পদ্ধতি অবশ্যই সম্প্রতি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হওয়ার পরিবর্তে অনলাইনে প্রদান করা হয়। এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করতে হয় ট্রাস্টের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে।

উপবৃত্তি প্রদানের পদ্ধতি প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের ওয়েবসাইটে সম্পর্কিত নোটিশবোর্ড বা বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত পদ্ধতিতে আবেদন করতে হয়। সাধারণত, এই অনুষ্ঠানের জন্য বিভিন্ন যোগ্যতা এবং আবেদনের শর্তাবলী উল্লেখিত থাকে।

এভাবে প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট বিভিন্ন উপবৃত্তি এবং অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের সুযোগ সরবরাহ করে শিক্ষার্থীদের উন্নত পথে পরিচালিত করে যাচ্ছে।

অনলাইন আবেদন পদ্ধতি:

অনলাইনে আবেদনের পদ্ধতি অনেকটা সহজ এবং সম্পর্কিত তথ্য সহজেই অ্যাক্সেসযোগ্য হওয়া উচিত। প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টে অনলাইনে আবেদনের জন্য আপনাকে নিম্নলিখিত পদক্ষেপ অনুসরণ করতে হবে:

১. অনলাইন পোর্টালে প্রবেশ করুন: প্রথমে আপনাকে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যাতে হবে। একবার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করলে, আপনি  অনলাইন আবেদনের অপশন পেয়ে যাবেন।

২. আবেদন ফরম ডাউনলোড করুন: অনলাইন আবেদনের পদ্ধতি প্রয়োজন হলে, আপনাকে ওয়েবসাইটের আবেদন ফরম বা অনলাইনে পূরণের জন্য অনুমতি প্রদান করা হবে। আবেদন ফরম ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে প্রদত্ত লিঙ্ক অনুসরণ করতে হবে।

৩. প্রয়োজনীয় তথ্য পূরণ করুন: আবেদন ফরমে আপনার সম্পূর্ণ তথ্য পূরণ করে নিবেন। আপনার শিক্ষাগত এবং ব্যক্তিগত তথ্য, যেমন নাম, পিতার/মাতার নাম, শিক্ষা সংক্রান্ত তথ্য, যেমন স্কুল/কলেজের নাম ইত্যাদি প্রয়োজন হতে পারে।

৪. আবেদন জমা দিন: সমস্ত তথ্য পূরণের পর, আবেদন ফরম সঠিকভাবে পূরণ করার পর আপনাকে অনলাইনে জমা দিতে বলা হবে। আবেদনটি জমা দিতে হলে সঠিকভাবে সমস্ত তথ্য পরীক্ষা করে নিশ্চিত হওয়া জরুরি।

এই পদ্ধতিতে অনলাইনে আবেদনের পদ্ধতি সহজ এবং অল্প সময়ের মধ্যে পূরণ করা যায়, যা শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় তথ্য সহজেই প্রদান করে। এছাড়াও, এই পদ্ধতি আবেদনকারীদের অনলাইনে তাদের আবেদনের অবস্থা নিরীক্ষণ এবং পর্যালোচনা করার সুযোগ সরবরাহ করে।

প্রাপ্তির প্রক্রিয়া:

১. আবেদন পরিশোধের পদ্ধতি এবং প্রাপ্তির পর প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট ও প্রক্রিয়া:

অনলাইনে আবেদন জমা দেওয়ার পরে যদি কোনো অনুষ্ঠানে অনুপ্রাণিত হয়ে থাকেন, তবে আপনাকে আবেদন ফি পরিশোধ করতে হবে। ফি পরিশোধের জন্য আপনাকে অনলাইনে বিকল্প পেমেন্ট মেথড ব্যবহার করতে হবে, যেমন ব্যাংক ট্রান্সফার, বিকাশ, নগদ ইত্যাদি। প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টগুলির মধ্যে সাধারণত আবেদনকারীর আইডি প্রুফ, তারিখ অথবা জন্ম সনদ, শিক্ষাগত যোগ্যতা সংক্রান্ত প্রমাণপত্র, আবেদন ফরম ও যে কোনো প্রয়োজনীয় দলিল সম্পর্কে সঠিকভাবে সম্পূর্ণ করতে হবে। প্রতিটি অনুষ্ঠানের প্রাপ্তির প্রক্রিয়া ও প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টের তালিকা সাধারণত ট্রাস্টের ওয়েবসাইটে উল্লেখিত থাকে।

২. প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট অন্তর্ভুক্ত অনুষ্ঠানের সময় এবং প্রয়োজনীয় তথ্য সম্পর্কে নির্দেশনা:

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের অন্তর্ভুক্ত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য আবেদনকারীদেরকে সময়ের সাথে সাথে সঠিকভাবে তথ্য সরবরাহ করা হয়। সাধারণত, অনুষ্ঠানের তারিখ এবং সময় ট্রাস্টের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়। সেখানে প্রয়োজনীয় তথ্য যেমন অনুষ্ঠানের তারিখ, স্থান, আবেদনের শর্তাবলী, অনুষ্ঠানের কার্যক্রম ইত্যাদি উল্লেখ থাকে। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য আবেদনকারীদেরকে অবশ্যই উক্ত তথ্য নিয়ে অবগত হতে হবে এবং প্রয়োজনে প্রতিটি বিষয়ে যোগাযোগ করা হতে পারে।

সমাপ্তি ও মন্তব্য:

  1. প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের পরবর্তী পরিকল্পনা এবং সমাপ্তির পর অনুষ্ঠানের তথ্য সম্পর্কে সঠিকভাবে ব্যাখ্যা করা জরুরি। সমাপ্তির পরে, ট্রাস্ট যেসব পরিকল্পনা অনুষ্ঠিত করতে চলেছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য উপলব্ধ করানো উচিত। আরও একটি অনুষ্ঠানের তারিখ, সময় এবং অন্যান্য তথ্য প্রদান করা উচিত যাতে আগামীকালে ব্যবহারকারীদের সঠিকভাবে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ঘটনার তথ্য প্রাপ্ত হয়।
  2. ব্যবহারকারীদের মন্তব্য এবং পরামর্শ সহ নির্দেশনা প্রদান করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ব্যবহারকারীদের মন্তব্য এবং পরামর্শ গ্রহণ করে ট্রাস্ট তাদের প্রয়োজনীয় নেতৃত্ব এবং পরিকল্পনা নির্মাণ করতে পারে। তারা যে কোনও প্রশ্ন বা প্রতিক্রিয়ার জন্য যোগাযোগ করতে উত্সাহিত করা উচিত।

প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট (প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট) সম্পর্কে সাধারণভাবে জিজ্ঞাসিত প্রশ্নগুলির জন্য নিম্নলিখিত FAQ প্রদান করা হয়েছে:

১. প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কী?

উত্তর: প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট হল একটি সরকারী সংস্থা যা শিক্ষার্থীদের জন্য আর্থিক সহায়তা ও অন্যান্য সুবিধা প্রদান করে।

২. আমি কি প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের জন্য আবেদন করতে পারি?

উত্তর: হ্যাঁ, আপনি প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের জন্য আবেদন করতে পারেন, যদি আপনার যোগ্যতা অনুযায়ী অনুদান পাওয়ার যোগ্য মনে করেন তাহলে ফরম  পূরণ করে এবং সম্পূর্ণ আবেদন প্রক্রিয়া শেষ করুন।

৩. আবেদন করার পর কি পরিমান সময় নেয় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠানিক শিক্ষার্থীদের অনুমোদন দিতে ?

উত্তর: আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে, প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট সাধারণত যোগ্য ব্যক্তিকে তাদের নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অনুমোদন  দেয়।

৪. আমি যে কোনো প্রশ্নের জন্য কোথায় যোগাযোগ করতে পারি?

উত্তর: যে কোনো প্রশ্ন বা পরামর্শের জন্য আপনি প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে তাদের যোগাযোগ অংশে যোগাযোগ করতে পারেন।

Alam Kibria Pasha
Alauddin Miah

Recent Posts

  • বাংলাদেশ

5 মিনিটে পাসপোর্ট চেক করার easy ও best উপায়

আপনি কি সম্প্রতি পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেছেন? আপনার পাসপোর্ট আবেদনের বর্তমান অবস্থা জানতে চাচ্ছেন? এই…

4 months ago
  • বাংলাদেশ

ই-পাসপোর্ট বাংলাদেশ 2024 – আবেদন, ফি, সুবিধা ও সকল তথ্য

১. ভূমিকা ই-পাসপোর্ট বা ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট হলো বায়োমেট্রিক পাসপোর্ট যা একটি ইলেকট্রনিক চিপ সহ ইস্যু…

4 months ago
  • বাংলাদেশ

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ইংরেজি করার নিয়ম 2024

বর্তমান বিশ্বায়নের যুগে, জন্ম নিবন্ধন ইংরেজি করার নিয়ম জানা এবং তা অনুসরণ করা প্রতিটি বাংলাদেশি…

4 months ago
  • বাংলাদেশ

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার সহজ পদ্ধতি

জন্ম নিবন্ধন সনদ হলো একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্টস  যা প্রত্যেক নাগরিকের পরিচয় নিশ্চিত করে। এটি…

4 months ago
  • বাংলাদেশ

Birth certificate check :কিভাবে নিশ্চিত করবেন আপনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

জন্ম নিবন্ধন নাম্বার এবং জন্ম তারিখ দিয়ে আপনি সহজেই ঘরে বসে আপনার Birth certificate check…

4 months ago
  • বাংলাদেশ

ভ্যালেন্টাইন ডে এর প্রকৃত ইতিহাস/ Actual History of Valentines Days

চলুন জেনে নেয় ভ্যালেন্টাইন ডে এর ইতিহাস সম্পর্কে , ২৬৯ সালে ইতালির রোম নগরীতে সেন্ট…

4 months ago
Alam Kibria Pasha