জেরকাপাড়া গ্রাম আটাপুর ইউনিয়ন

0
0
hard logo

জেরকাপাড়া গ্রাম আটাপুর ইউনিয়ন

জেরকাপাড়া গ্রাম আটাপুর ইউনিয়ন

বাংলাদেশের আট-দশটা গ্রামের মতোই আমার গ্রাম জেরকাপাড়া। আমার গ্রাম আমার কাছে স্বর্গের ন্য়ায়। এই গ্রামে আমার জন্ম। তাই আমি আমার গ্রাম কে খুব ভালো বাসি।

আমার গ্রামের নাম জেরকা পাড়া। আমাদের গ্রামটি আটাপুর ইউনিয়ন এর ৪নং ওর্য়াড এর মধ্যে রয়েছে। আমার গ্রামে এর পূর্ব পাশ দিয়ে বয়ে চলেছে তুলসীগঙ্গা নদী ও মোহাম্মাদপুর ইউনিয়ন এর সীমানা। গ্রামের উত্তর পাশে রয়েছে শস্য মাঠ ও গোলাকাটা গ্রাম। পশ্চিম দিকেও রয়েছে শস্য মাঠ ও আটাপুর গ্রাম এবং দক্ষিণ পাশে রয়েছে চলাচলের জন্য রাস্তা শস্য মাঠ, তারই পাশে দিয়ে বয়ে চলেছে নদী।

গ্রামের নাম করণঃ আমাদের গ্রাম এর নাম স্বর্গীয় বাবু জেরকা সিং বারোয়ার এর নাম অনুসারেই রাখা হয় জেরকাপাড়া। স্বর্গীয় বাবু জেরকা সিং বারোয়ার ১৯২৫ সালে উচাই জেরকা এস সি উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন, শুধু প্রতিষ্ঠাতা নয় তিনি দাতাও ছিলেন, স্কুল সুন্দর ভাবে পরিচালনার জন্য ১০০ বিঘা জমি দান করেন। এই মহৎ মানুষ টি আমাদের গ্রামের বসবাস করতেন তাই তার নাম অনুসারেই আমাদের গ্রামের নাম রাখা হয়।

আমাদের এই গ্রামে হিন্দু, মুসলিম সহ নানান ধর্মের মানুষ বসবাসা করে। সবার মধ্যে ভ্রাত্যিত্ব পুর্ণ সম্পর্ক বিদ্যমান। সকলেই এক সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সমাজ এর উন্নয়ন নিয়ে কাজ করতে এগিয়ে আসে। আমাদের গ্রামের প্রধান উৎপাদন দ্রব্য হলো ধান, পাশাপাশি শাক- সবজি, মৎস্য খামার, পোল্ট্রি খামার, গবাদিপশু পালন এর দিকে গ্রামের মানুষ এর চাহিদা বাড়ছে। আমাদের গ্রাম এক পাশে যেমন মসজিদ রয়েছে অপরপার্শে মন্দিরও রয়েছে। আযান এর সাথে শঙ্খ ধনীর শব্দ শোনা যায়। গ্রামের বেশির ভাগ মানুষ এর ঘরবাড়ি মাটির তৈরি। দিন দিন অবশ্য যুগের সাথে তাল মিলিয়ে অনেকেই আধাপাকা বাড়ি নির্মাণ করছে।

আমাদের গ্রামের যোগাযোগ ব্যবস্থা খুবই ভালো। আমাদের পাঁচবিবি উপজেলা থেকে খুব সহজেই ভ্যান, অটোরিকশা, সিএনজি, তে খুব অল্প সময় এর মধ্যে গ্রামে আসা যায়। প্রকৃতি যেনো তার খেয়ালে আমাদের গ্রামকে সাজিয়েছে। যে দিকেই তাকানো হোক না কেনো সে দিকেই সবুজ আর সবুজ। আম, জাম, লিচু, কাঁঠাল, তাল, কলা প্রভৃতি গাছের অপার সম্ভার ।

সুজলা সুফলা শস্য-শ্যামলা আমাদের গ্রাম। এমন গ্রামে জম্ম নিয়ে ধন্য আমি। আমরা সবাই মিলে গ্রামের জন্য ভালো কিছু করার দৃঢ় প্রতিজ্ঞায় প্রতিজ্ঞা বদ্ধ ।

 

রচনায়,

বিজয় সিং

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here